আমাদের বাউফল

বাউফলে শোকের তোরণে ঈদ শুভেচ্ছা, তোপের মুখে ইউপি চেয়ারম্যান

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩ তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাউফল উপজেলার বিলবিলাস বন্দরে তোরণ নির্মান করতে গিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ সমর্থকদের তোপের মুখে পড়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও বাউফল ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন খান।

একাধিক সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বাউফল বরিশাল সড়কে বিলবিলাস বন্দরে শোক দিবস উপলক্ষে কালো পতাকা ও বঙ্গবন্ধু ছবি সম্বলিত বিশাল তোরণ নির্মান করেন। শোকের মাস শেষ হওয়ার আগেই ওই তোরণে বঙ্গবন্ধুর ছবি ওপর তার ও চীফ হুইপ আসম ফিরোজ এমপির ছবি দিয়ে ঈদ শুভোচ্ছা ব্যানার টানানো হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উপজেলা আওয়ামী লীগের এক নেতা বলেন, নৌকা প্রতীক নিয়ে বাউফল ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর দলীয় কার্যক্রম সভা সমাবেশে তেমন দেখা যায়নি। আসন্ন নির্বাচনে সামনে চীফ হুইপ মহোদয়কে খুশি করার জন্য তোরন নির্মান করেছে। তাও আবার শোকের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা।
শোকের তোরণে ঈদ শুভেচ্ছা, তোপের মুখে ইউপি চেয়ারম্যান

উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বলেন, নওমালা বাউফল আদাবাড়িয়াসহ বেশ কিছু ইউনিয়নে যে সব তোরণ করা হয়েছে সেগুলো বিয়ের রঙ্গিন কাপড় দিয়ে তৈরি করা হয়েছে। আবার অনেক স্থানে তোরণে লাগানো হয়েছে ঈদ শুভেচ্ছা। কোথাও কোথাও দেয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর হাস্যজ্বল ছবি। নির্বাচন আগ মুহুর্তে স্থানীয় এমপি ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীকে বার বার হেয় করলেও তাদের বিরুদ্ধে দলিয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের ব্যাপরে কোনো ব্যাবস্থা নেয়া হচ্ছে না।

চেয়ারম্যান জসিম উদিন খান জানান, আগষ্ট মাস শোকের মাস ও ঈদ আনন্দের ও মাস। এ উপলক্ষে তোরণ নির্মান করেছি। শোক ও ঈদ শুভেচ্ছা একই সাথে করছি। তবে এটা আমার ভুল হয়েছে। এ ব্যাপারে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মোতালেব হাওলাদার বলেন, এরকম ঘটনা শুনেছি। তবে ওনার অজ্ঞতা ও দক্ষতার অভাব রয়েছে।

সূত্রঃমানবকন্ঠ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *