আদাবাড়িয়াআমাদের বাউফল

বাউফলে স্মার্ট কার্ড নিতে এসে অর্ধশতাধীক অসুস্থ, নিখোঁজ-২

বাউফলে বাদ পড়া স্মার্ট কার্ড নিতে এসে অর্ধশতাধীক অসুস্থ, নিখোঁজ-২

মো.হুমায়ুন কবিরঃ স্পেশাল প্রতিবেদক।।

বাউফলে স্মার্ট কার্ড নিতে এসে কমপক্ষে অর্ধশতাধীক নারী পুরুষ অসুস্থ হয়ে পরেছেন। এদের মধ্যে রাবেয়া গেম (১৮) ও ফেরদৌসী বেগম (২৭) নামের দুই নারীকে বাউফল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে নুপুর বেগম (৩৫) ও তার তিন বছরের ছেলে ওমর ফারুক। এ ছাড়াও ভোগান্তীর শিকার হয়েছেন আগত কয়েক হাজার মানুষ। অব্যবস্থাপনার কারণে এ ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বাউফলে ১৫ টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় বাদ পরা ভোটারদের মধ্যে স্মার্ট কার্ড বিতরণের জন্য উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে শুক্র ও শনিবার দুই দিন ধার্য্য করা হয়। ভেন্যু ছিল বাউফল সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় ।

বাউফলের স্থানীয় লোকজন যারা ঢাকা, চট্রগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বসবাস করছেন তারা স্মার্ট কার্ড নিতে এলাকায় আসেন। শুক্রবার ও শনিবার দুই দিন পৌরসভাসহ ১৫ ইউনিয়নের বাদ পরা ভোটারদের মধ্যে স্মার্ট কার্ড বিতরণ করা হয়। এই দুই দিনে বাদ পরা প্রায় ১০ হাজার মানুষ জমায়েত হয় বাউফল মডেল হাইস্কুল মাঠে। সকাল থেকে মধ্য রাত পর্যন্ত অপেক্ষা করে অধিকাংশ ভোটার স্মার্ট কার্ড হাতে না পেয়ে হতাশ হয়ে ফিরে গেছেন।

হোটেল রেস্টেুরেন্টে পর্যাপ্ত খাবার না থাকায় অভূক্ত থেকে অসুস্থ হয়ে পরেছেন কমপক্ষে অর্ধশত নারী পুরুষ। অভিযোগ রয়েছে স্মার্ট কার্ড সংগ্রহের জন্য ইউনিয়ন ওয়ারি আলাদা কোন বুথ ছিলনা। মাত্র একটি বুথ থেকে টোকেন দেয়া হয়েছে। তা ছাড়া পর্যাপ্ত ল্যাপটপ, ফিঙ্গার প্রিন্ট ও চোখের ছাপ নেয়ার মেশিন না থাকায় দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হয়েছে। দাশপাড়া গ্রামের আবুল কালাম (৫০) নামের এক ব্যক্তি চট্রগ্রাম থেকে রওনা দিয়ে শুক্রবার সকাল সারে ৭ টায় লাইনে দাঁড়িয়ে রাত ১২ টা পর্যন্ত অপেক্ষা করে বাড়ি চলে যান । পরের দিন শনিবার তিনি সকাল ৭ টায় লাইনে এসে দাঁড়িয়ে দুপুর ১২ টার সময় স্মার্ট কার্ড হাতে পান। তারমত এরকম ভোগান্তীর শিকার হয়েছেন কয়েক হাজার নারী পুরুষ ভোটার।

এ ছাড়াও কাঙ্খিত স্মার্ট কার্ড হাতে পেয়ে দেখা গেছে নামের বানান ভুল, বাবার নাম ভুল, বয়স সঠিক নেই। আবার অনেকের স্মার্ট কার্ড আসেনি। ল্যাপটপে ক্লিক করলে নট ফাউন্ড এসেছে। আবার দায়িত্বে নিয়োজিত পুলিশ ও দালাল চক্র দ্রুত স্মার্ট কার্ড পাইয়ে দেয়ার নাম করে অনেকের কাছ থেকে একশ টাকা করে নিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। চরম বিশৃঙ্খলার কারণে অনেকে স্মার্ট কার্ড না নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

এদিকে আদাবাড়িয়া ইউনিয়নের আতশখালী গ্রামের আবদুর রব মৃধার স্ত্রী নুপুর বেগম (৩৫) তার তিন বছরের ছেলে ওমর ফারুককে নিয়ে শুক্রবার সকালে স্মার্ট কার্ড নিতে বাড়ি থেকে বাউফল মডেল স্কুলে এলেও তিনি শনিবার পর্যন্ত বাড়ি ফিরে যাননি বলে তার স্বজনরা জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাচন অফিসারের মোবাইল নম্বরে একাধিক বার ফোন দিলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। উপজেলা নির্বাহী অফিসার পিজুস চন্দ্র দে ছুটিতে থাকায় তার বক্তব্যও পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *