আমাদের বাউফলধূলিয়া

তেতুলিয়া নদী ভাঙ্গন রোধে আ স ম ফিরোজ এমপির উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন ধুলিয়াবাসী

বাউফলে তেতুলিয়া নদীর ভাঙ্গন থেকে ধুলিয়া ইউনিয়ন রক্ষা প্রকল্পের উদ্বোধন কালে জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আ.স.ম. ফিরোজ এমপি বলেছেন, শেখ হাসিনা দেশের কোন মানুষ কষ্ট নিয়ে বেঁচে থাকুক সেটা চান না। দেশের প্রত্যেকটি মানুষের জীবনমান উন্নয়নের কথা ভেবেই তিনি বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করে যাচ্ছেন। নদী ভাঙ্গনসহ নানা ধরণের প্রাকৃতিক দুর্যোগ মেকাবেলায়ও সর্বদা জনগণের পাশে রয়েছে আওয়ামী লীগ। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী দেশে সুসম উন্নয়নে বিশ্বাসী। বাউফলবাসীকে ভালবাসে বলেই প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ধুলিয়া ইউনিয়নকে তেঁতুলিয়া নদীর হাত থেকে রক্ষা করতে এই প্রকল্পে অনুমোদন পেয়েছে।

 

এসময় দেশকে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ এবং স্বাধীনতাবিরোধিদের হাত থেকে রক্ষা করতে এবং দেশের চলমান উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকায় ভোট দিয়ে আবারো শেখ হাসিনাকে সরকার গঠনের সুযোগ দেয়ার আহবান জানান চীফ হুইপ।
আজ রোববার বেলা ১১টায় বাউফলের ধুলিয়া ইউনিয়নের পূরনো লঞ্চঘাট এলাকায় ধুলিয়া-তেতুলিয়া নদী ভাঙ্গণ রোধ কমিটির সভাপতি মোফাজ্জেল হোসেন মফু সভাপতিত্বে আয়োজিত উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চীফ হুইপ আ.স.ম. ফিরোজ এমপি এসব কথা বলেন।
উল্লেখ্য, দীর্ঘ বছর পর্যন্ত মেঘনার অববাহিকা প্রমত্তা তেঁতুলিয়া নদীর করাল গ্রাসে বাউফলের মাণচিত্র থেকে হারিয়ে যেতে বসেছে ধুলিয়া ইউনিয়ন। ইতিমধ্যেই ধুলিয়া ইউনিয়নের প্রায় তিন কিলোমিটার নদীগর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। তেঁতুলিয়া পাড়ের শত শত পরিবার আজ সর্বস্ব হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে।

 

ধুলিয়া ইউনিয়নবাসী প্রমত্তা তেঁতুলিয়া নদীর করাল গ্রাস থেকে রক্ষা পেতে দীর্ঘদিন পর্যন্ত আন্দোলন সংগ্রাম করে আসছিল। সর্বশেষ ধুলিয়াবাসীরা গত ২১ সেপ্টেম্বর ঢাকায় জাতীয় প্রেসকাবের সামনে মানববন্ধন করেন। নদী ভাঙ্গণ থেকে ধুলিয়াবাসীকে রক্ষায় জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আ.স.ম.ফিরোজ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীর সহায়তা কামনা করেন। এরই প্রেক্ষিতে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় ধুলিয়া ইউনিয়নকে নদী ভাঙ্গণের হাত থেকে রক্ষার জন্য ৭০০ কোটি টাকার একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছেন। অনুষ্ঠানে উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা প্রবীন মুক্তিযোদ্ধা আ. মতিন, ঢাকা দক্ষিণ যুবলীগ ও ধুলিয়া-তেতুলিয়া নদী ভাঙ্গণ রোধ কমিটির সাধারন সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, ঢাকাস্থ বাউফল জণক্যাল্যান সমিতির সভাপতি ডা. মাহাবুব উদ্দিন, পটুয়াখালী জেলা পরিষদের সদস্য ও বাউফল প্রেস ক্লাব আহবায়ক হারুন অর রশিদ খান, জহির উদ্দিন বাবুল, সাংবাদিক অতুল পাল, পটুয়াখালী জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী হাসান মাহামুদ, প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে দোয়া মিলাদ শেষে বালুর বস্তা ফেলে কাজের উদ্বোধন করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *