আমাদের বাউফলনাজিরপুর

নাজিরপুরে অবৈধভাবে মা ইলিশ পাচারকালে বাঁধা! মারধরের অভিযোগ

নাজিরপুরে অবৈধভাবে মা ইলিশ পাচারকালে বাধা দেওয়ায় মারধরের অভিযোগ

এম.জাফরান হারুন:

বাউফল উপজেলার নাজিরপুর ইউপির দক্ষিণ বড় ডালিমা গ্রাম দিয়ে সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে অবৈধভাবে মা ইলিশ পাচারকালে বাধা দেওয়ার কারনে এক যুবককে মারধর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা যায়, যাকে মারধর করা হয়েছে সে নাজিরপুর ইউপির ০৮ নং ওয়ার্ডের মো. বেলায়েত প্যাদার পুত্র মো. হারুন প্যাদা (৪০)।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গতকাল রাত ০৮:৪০মিনিটের সময় সাবেক মেম্বার আনছার খাঁ তার ভাতিজা হাসানকে দিয়ে জুলহাস নামক মোটরসাইকেল চালক তার মোটরসাইকেল করে মা ইলিশ গোপনে নেওয়ার সময় স্থানীয় লোকজন দেখে ফেললে তারা আনছার খাঁ কে গিয়ে বলে। কিন্তু ওই সময় তার ভাতিজা বলে কোন পদক্ষেপ নেননি। এদিকে স্থানীয় হারুন প্যাদা প্রতিবাদ জানালে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

ওই সূত্র ধরে পরেরদিন মঙ্গলবার (১৬অক্টোবর) সকালে সাবেক মেম্বার আনছার খাঁ ও তার ভাতিজা হাসানসহ স্বজনরা এবং ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের দুই চৌকিদারেরা দেশীও অস্ত্রসহ সজ্জিত হয়ে হারুন প্যাদাকে তার নিজ বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে বড় ডালিমা ব্রীজ সংলগ্ন ৮নং ওয়ার্ডের বতর্মান মেম্বার হাবিবের কাছে নিয়ে আসলে মেম্বার তার দোকানের সামনে হারুনকে বেধে ফেলার নির্দেশ দেন।

পরে আনছার খাঁ ও তার ভাতিজা হাসানসহ স্বজনরা হারুনকে এলোপাথাড়ি পিটাতে থাকলে স্থানীয় লিটন প্যাদা বাধা দিলে তাকেও মারার চেষ্টা করলে স্থানীয় লোকজন একত্রিত হয়ে প্রতিবাদ করে। এক পর্যায় তারা থমকে থেমে যায়।

ওই সূত্রে ধরে তখন এলাকায় উত্তেজনা ছরিয়ে পড়ে। এপ্রসঙ্গে আনছার খাঁ মুঠোফোনে প্রতিবেদক’কে জানান, আমি এঘটনার কিছু যানিনা। এদিকে আহত হারুন প্যাদা জানান, আমি ওই অবৈধ মা ইলিশ সরবরাহে প্রতিবাদ করার কারণে মঙ্গলবার সকালে আনছার খাঁ, ভাতিজা হাসানসহ স্বজনরা ও দুই চৌকিদার আমার বাড়ি এসে আমাকে জোরপূর্বক নিয়ে আসে বতর্মান মেম্বার হাবিবের দোকানে। পরে তার হুকুমে আমাকে এলোপাথাড়ি মারধর করলে স্থানীয় লোকজন আমাকে উদ্ধার করে। আমি এর বিচার চেয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এব্যাপারে বাউফল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমি এখনও ওই ব্যাপারে কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে অবশ্যই তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *