আমাদের বাউফলরাজনীতি

যে কারণে শহিদুল আলম তালুকদারের নির্বাচন অনিশ্চিত হতে পারে

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) থেকে মনোনয়ন প্রাপ্ত হয়ে ২০০১ সালের জাতীয় নির্বাচনে বিপুল জনপ্রিয়তা নিয়ে পটুয়াখালী-২ বাউফল আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হন শহিদুল আলম তালুকদার। এরপর শহিদুল আলমের বিরুদ্ধে ২০১০ সালে দুদক কর্তৃক দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০০৪ এর ২৬(২)(ক) ও ২৭(ক) ধারায় একটি মামলা (বিশেষ মামলা নং-৫/১২, জিআর নং-২৪৮/১০) দায়ের করা হয়। গত ১৩/০২/২০১৭ইং তারিখে পটুয়াখালী বিশেষ জজ আদালত রায় ঘোষণা পূর্বক তাকে সাজা প্রদান করেন। আর এই সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় সংবিধান অনুযায়ী তিনি নির্বাচনের প্রার্থী হতে পারবেন কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

পটুয়াখালী জেলা জজ কোর্ট সূত্রে জানা যায়, উক্ত মামলায় অপরাধ প্রমানিত হওয়ায় শহিদুল আলম তালুকদারকে ২৬(২) ধারায় ২ (দুই) বছর ও ২৭(১) ধারায় ৭ (সাত) বছর অর্থাৎ মোট ৯ (নয়) বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ১ লক্ষ টাকা অর্থদণ্ডও প্রদান করা হয়, অর্থদণ্ডের টাকা অনাদায়ে আরো ৬ (ছয়) মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। তাছাড়া আদালত শহিদুল আলমের জ্ঞাত আয় বহির্ভূত ২৩,৩৫,৬০০ টাকা রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করারও আদেশ প্রদান করেন।

উক্ত রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল দায়ের করে বর্তমানে তিনি জামিনে মুক্ত আছেন। কিন্তু আপিল আদালত কর্তৃক শহিদুল আলমের সাজা স্থগিত না হওয়ায় তিনি আসন্ন একাদশ জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবেন কি না এ নিয়ে জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। সংবিধানের ৬৬(২)(ঘ) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী নৈতিক স্খলন জনিত কারণে কোন ব্যক্তি যদি অন্যূন দুই বছর কারাদণ্ডে দন্ডিত হন এবং তার মুক্তির পরে যদি ৫ (পাঁচ) বছর অতিবাহিত না হয় তাহলে ঐ ব্যক্তি সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন। শহিদুল আলম তালুকদার দুর্নীতির মামলায় ৯ (নয়) বছর দণ্ড প্রাপ্ত হওয়ায় তিনি নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে পারবেন না বলে অনেকে মনে করছেন।

এবিষয়ে সাবেক এমপি শহিদুল আলম তালুকদার জানান, এতে অসুবিধা হওয়ার কথা না। এ নিয়ে আমি চিন্তা করিনা। ইনশাআল্লাহ আমিই নমিনেশন পাবো।

এ ধরনের মামলায় সাজাপ্রাপ্ত এক ব্যক্তির নির্বাচনে অংশগ্রহণের বিষয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, আপিল আদালত কর্তৃক কোন আসামির সাজা স্থগিত করা না হলে তিনি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে পারবেন না।

অন্যদিকে সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি জয়নুল আবেদিন বলেন, আপিল গৃহীত হওয়ায় সাজা প্রাপ্ত কোন ব্যক্তির নির্বাচন করতে কোন বাধা নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *