আমাদের বাউফলব্রেকিং নিউজরাজনীতি

জেনে নিন বাউফলে কে কোন দলের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন

পটুয়াখালী-২ বাউফল আসনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) থেকে ৬ জন এবং জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ থেকে একজন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী হতে তারা মনোনয়ন সংগ্রহ করেন। মনোনয়ন ফরম সংগ্রহকারীরা হলেন- সাবেক সংসদ সদস্য (২০০১-০৫) মো. শহিদুল আলম তালুকদার, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহদপ্তর সম্পাদক মো. মুনির হোসেন, বাউফল উপজেলা বিএনপির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার ফারুক আহমেদ তালুকদার, জিয়া গবেষণা পরিষদের সভাপতি সাবেক ছাত্রনেতা মো. আনিসুর রহমান আনিস, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ সভাপতি মো. মনিরুল ইসলাম মনির এবং বাউফল উপজেলা বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক মো. রেজাউল করিম বাদশা। এ ছাড়া জামায়াতের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সেক্রেটারি ও ছাত্রশিবিরের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি ড. শফিকুল ইসলাম মাসুদ স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন।

 

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন সংগ্রহ ও জমা প্রদান করেছেন চিফ হুইফ আ স ম ফিরোজ ও পৌর মেয়র জিয়াউল হক জুয়েল। তাঁরা প্রত্যেকেই দাবি করছেন তাঁদের নৌকার মাঝি ঘোষণা করা হবে। এবং তাঁরা সফলতা অর্জন করবে।

বাউফলের সাবেক এমপি শহিদুল আলম তালুকদারের সমর্থকরা জানান, দল থেকে তাকে মনোনয়ন দেওয়া হলে জয় নিশ্চিত। আগামী নির্বাচনে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন বলে মনে করেন বিএনপির তৃণমূল ভোটাররা। সারা বছর ঢাকায় অবস্থানকারী ফারুক আহমেদ তালুকদার মনোনয়ন পেলে আওয়ামী লীগ খুব সহজেই জয় পাবে বলেও দাবি তাদের।
বাউফল পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর হুমায়ন কবীর জানান, উপজেলা বিএনপির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার ফারুক আহমেদ তালুকদার ২০০৮ সালের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে প্রায় ৬০ হাজার ভোট পেয়ে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আ স ম ফিরোজের কাছে পরাজিত হয়েছিলেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দল থেকে তাকে নমিনেশন দিলে বাউফলের আসন বিএনপির ঘরে আসবে। তবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা নির্ভর করছে দলের নমিনেশনের ওপর।

এদিকে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহদপ্তর সম্পাদক মো. মুনির হোসেন জানান, বাউফলের মানুষ সাবেক এমপি এবং বর্তমান সভাপতির কর্মকান্ড সম্পর্কে খুব ভালোভাবে জানেন। আমার দৃঢ় বিশ্বাস, দল আমাকে নমিনেশন দিলে বাউফল আসনটি দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে উপহার দিতে পারব।

অন্যদিকে জিয়া গবেষণা পরিষদের সভাপতি সাবেক ছাত্রনেতা মো. আনিসুর রহমান আনিসসহ অন্যান্য প্রার্থীরা তাদের জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী রয়েছেন।

এদিকে নিবন্ধন বাতিল হয়ে যাওয়ায় জামায়াতের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সেক্রেটারি ও ছাত্রশিবিরের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি ড. শফিকুল ইসলাম মাসুদ বাউফল আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার জন্য মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। বাউফল উপজেলা জামায়াতের আমীর মাওলানা রফিকুল ইসলাম বিষয়টি সাংবাদিকদের কাছে নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, উপজেলা বিএনপির একাংশে অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব রয়েছে। তাই, আমরা আশাবাদী যে, আমাদের প্রার্থী ড.শফিকুল ইসলাম মাসুদকে মনোনয়ন দেবে জোট। আমাদের প্রার্থীকে সমর্থন দেয়ার জন্য বিএনপির সঙ্গে আলাপ-আলোচনা চলছে। শিগগিরই এর ফায়সালা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *