আমাদের বাউফলধূলিয়া

বাউফলে দুই নারীকে পিটিয়ে জখম করেছেন সালিসদার

বাউফলের সালিসদার পিটিয়ে জখম করেছে দুই নারীকে। ধুলিয়া ইউনিয়নের কমলাপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। আহত রানী বেগম(৫০) ও তার বোন সালেহা বেগমকে(৪২) বুধবার (২৯ মার্চ) দিবাগত রাত সাড়ে ৮টার দিকে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, জমিজমা নিয়ে একই বাড়ির বাবুল হাওলাদারের সাথে করিম হাওলাদের বিরোধ চলে আসছিল। বিরোধ মিমাংসায় দুই পক্ষই স্থানীয় জামসেদ হাওলাদার, বাবুল ও হুমায়ন কবিরকে সালিস মানেন।

গত রবিবার (২৭ মার্চ) বাবুল হাওলাদারের তার স্ত্রী রানী বেগমকে নিয়ে কেশবপুর ইউনিয়নের বাজেমহল অসুস্থ শ্বাশুরী সাফিয়া বেগমকে দেখতে যান। এই ফাঁকে প্রতিপক্ষ বাবুল হাওলাদারের বসতঘরে সামনের দরজায় তালার উপরে তালা লাগিয়ে দেন।

এ খবর পেয়ে বাবুল হাওলাদার ও তার স্ত্রী ও স্যালিকা সালেহা বেগম বুধবার(২৯ মার্চ) সকালে বাড়ি আসেন। তারা সকাল থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত তালাবদ্ধ ঘরের সামনে অপেক্ষা করেন। ইফতারির আগে হুমায়ন কবির নামের এক সালিসদার এসে ঘরের দরজার তালা খুলে দেন।

এ নিয়ে বাবুল হাওলাদারের স্যালিকা সালেহা বেগমের সাথে কথা কাটা কাটি হয়। একপর্যায়ে সালিসদার হুমায়ন কবির তাকে ধাক্কা মেরে মাটিতে ফেলে দেন। এসময় বাবুল হাওলাদারের স্ত্রী রানী বেগম এসে ডাকচিৎকার দিলে হুমায়ন কবির তালা দিয়ে তাকে মাথা ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় পিটিয়ে জখম করে।

তখন সালেহা বেগম বোনকে রক্ষা করতে এগিয়ে এলে তাকেও তালা দিয়ে মাথা ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় পিটিয়ে জখম করে। ঘটনার সময় বাবুল হাওলাদার বাউফল থানায় অবস্থান করছিলেন।

পরে বাড়ির লোকজন আহতদের উদ্ধার করে রাত সাড়ে ৮টার দিকে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করে। বাউফল থানার ওসি আল মামুন বলে, ‘ অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *