আমাদের বাউফলবাউফল

বাউফলের সোহান হত্যা: যেভাবে র‌্যাবের হাতে কুমিল্লা থেকে আটক হলো ২ জন

গত ৩১ মার্চ ২০২৩ খ্রিঃ তারিখ র‌্যাব-১০ এর একটি আভিযানিক দল কুমিল্লা জেলার মেঘনা থানাধীন মোল্লাকন্দি এলাকায় একটি অভিযান পরিচালনা করে ।রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর চাঞ্চল্যকর আব্দুল্লাহ আল সোহান হত্যা মামলার তদন্তেপ্রাপ্ত ০২ জন পলাতক আসামীকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিদের নাম মোঃ সাজিদ হোসেন (২১), পিতা- তোজাম্মেল হোসেন, ও মোঃ সোহেল (২২), পিতা- জজ মিয়া ।

জানা গেছে, আব্দুল্লাহ আল সোহান প্রায় এক বছর আগে পটুয়াখালীর বাউফল পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের মাসুমা সিদ্দিকা দোলা নামের(২৪) এক তরুনীকে বিয়ে করেন। বিয়ের বিষয়টি উভয় পরিবারে গোপন ছিল। দোলা তার বাবা- মায়ের সাথে ঢাকা থাকতো। আর আবদুল্লাহ আল সোহানও ঢাকার খিলগাঁও সি ব্লক আনসার ক্যাম্পে পিছনে ভাড়া বাসায় তার মা ও বোন সহ থাকতো সোহানের গ্রামের বাড়িও বাউফল পৌর শহরের ২নং ওয়ার্ড। তার বাবা ইউনুস খান ওই ওয়ার্ডের পৌর কাউন্সিলর।

ঘটনার দিন মঙ্গলবার (২৮ মার্চ) সোহান ঢাকার বাসা থেকে ইফতারীর আগে স্ত্রী দোলার সাথে দেখা করার জন্য ঢাকার গোলাপ বাগে যান। এসময় দোলার বাবা- মা বাসায় ছিলনা। ইফতারীর ৩০-৪০ মিনিট পর দোলার ভাড়াটে বাসার মালিক জামাল হোসেন সোহানের উপস্থিতি টের পেয়ে তাকে বাসা থেকে টেনে হেচরে মারতে মারতে নিচতলায় একটি রুমে নিয়ে যায়।

দোলা এসময় বাড়ীর মালিককে জানান সোহান তার স্বামী। তাদের বিয়ের কাবিননামাসহ কোর্ট ম্যারেজের কাগজপত্র উপাস্থাপন করলে বাড়ীর মালিক তা অগ্রায্য করেন। মারধরের একপর্যায়ে সোহান অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে মুগদা মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন ।

সোহান এক ভাই এক বোনের মধ্যে বড়। তিনি পড়াশুনার জন্য কানাডা যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন । এঘটনায় সোহানের বাবা ঢাকার যাত্রাবাড়ী থানায় ৬জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় বাড়ির মালিক জামাল হোসেনসহ ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *