আমাদের বাউফলকনকদিয়া

ভাঙ্গা সড়ক নিউজ হওয়ার পরেও কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না কর্তৃপক্ষ!

হুমায়ুন কবিরঃ

বাউফলে জনগুরুত্বপূর্ণ বেশকিছু সড়কের বেহাল অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। সড়কের বিভিন্ন স্থানে স্থানে সৃষ্ট গর্তের ফলে ভোগান্তির কবলে পড়েছেন রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী বিভিন্ন শ্রেনীর জনগন।

শিগগিরই সড়কগুলো মেরামত করা না হলে বাউফলের সঙ্গে এ সকল এলাকার সড়ক যোগাযোগ সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হওয়ার আশংকা করা হচ্ছে।

সরেজমিন ও সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার বাংলাবাজার থেকে ধানদী বাজার, কনকদিয়া বাজার থেকে কাছিপাড়া বাজার হয়ে বাহের চর পর্যন্ত পর্যন্ত প্রায় ২০ কিলোমিটার সড়কের এখানে ওখানে সৃষ্টি হয়েছে ছোট বড় খানাখন্দের।

এ ছাড়াও কাছিপাড়া বাজার থেকে বাহের চর বাজার পর্যন্ত রাস্তাটিও বর্তমানে খানা খন্দে পরিপূর্ণ। ফলে যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ায় সাধারণ মানুষ ভোগান্তির কবলে পড়েছেন। সড়কটির বেহাল অবস্থার কারনে কাছিপাড়া থেকে বাউফল উপজেলাগামী পণ্যবাহী টমটম, অটোরিক্সা, মটরসাইকেল প্রায়ঃশ দূর্ঘটনার কবলে পড়ে থাকে। যাত্রীবাহী অটোরিকশা সহ অন্যান্য যানবাহন চলাচল করছে অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে। প্রতিদিন এ সড়ক দিয়ে কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ নানা পেশার কয়েক হাজার মানুষ চলাচল করছেন।

রাস্তাটি মেরামতের ৪/৫ বছর যেতে না যেতেই বেহাল অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে বলে স্থানীয় জনগণের অভিযোগ। সড়কটির অধিকাংশ স্থানেই কার্পেটিং উঠে সৃষ্টি হয়েছে ছোট-বড় অসংখ্য গর্ত। স্থানীয় উদ্যোগে মাঝে মধ্যে বড় বড় গর্ত কাদামাটি দিয়ে ভরাট করলেও সেখানে পূনরায় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। কনকদিয়া ও কাছিপাড়ার সাথে যোগাযোগের একমাত্র গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি অনতিবিলম্বে মেরামতের জোড় দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা। কনকদিয়া বাজার থেকে আনারকলি মাধ্যমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত আনুমানিক প্রায় ২০কিলোমিটার সড়কে রয়েছে অসংখ্য ছোট-বড় গর্ত।

দীর্ঘদিন ধরে ওই সড়কগুলোর বেহাল দশা হলেও আজ পর্যন্ত কোন সংস্কার না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রা। সাবেক ডেপুটি কমান্ডার(উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ) ও কনকদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি মোঃ ইউসুফ আলী হাওলাদার বলেন, মালবাহী ট্রলি চলার জন্য সড়কটির এমন বেহাল অবস্থা হওয়ায় এলাকাবাসীকে যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

কনকদিয়া বাজার থেকে কাছিপাড়া পর্যন্ত প্রায় ১০ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সড়কটি দিয়ে প্রতিনিয়ত ছাত্র ছাত্রী সহ নানা শ্রেনি পেশার লোকজন চলাচলে ছোট-বড় দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। চলাচলের অনুপযোগী রাস্তাটি দ্রুত সংস্কার করার জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানান।

সড়কগুলোর বেহাল অবস্থার বিষয়টি স্বীকার করে বাউফল এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী জহিরুল ইসলাম বলেন,কয়েকটি রাস্তা অতিবৃষ্টিজনিত ক্ষতিকর রাস্তা প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে,আশা করি আগামী অক্টোবর মাসে টেন্ডারের মাধ্যমে কাজ শুরু হবে।

সম্পাদনায়ঃরুশমি আকতার তাহিরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *