আমাদের বাউফলবগা

বাউফলে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ; যেভাবে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার পিস্তল বাবু

বাউফলের বগার শাপলাখালির বাবু মৃধা ওরফে পিস্তল বাবু। রিতিমত আতংকের এক নাম। বাউফলে এক কলেজ ছাত্রীকে (১৮) সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি বাবু মৃধা ওরফে পিস্তল বাবুকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

বাবু বাউফল উপজেলার বগা ইউনিয়নের শাপলাখালী গ্রামের মোফাজ্জেল মৃধার ছেলে। ধর্ষিতা বাউফলের বগা ইয়াকুব শরীফ ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী।

৭ জুলাই সকালে ওই বাবুকে বাউফল থানায় হস্তান্তর করা হয়। পরবর্তীতে বাবুকে পটুয়াখালী আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে এ তথ্য নিশ্চি করেন বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শোনিত কুমার গায়েন।

এর আগে শনিবার (৬ জুলাই) বিকেলর দিকে র‌্যাব-৮ ও র‌্যাব-১০ যৌথ অভিযান চালিয়ে ঢাকার কেরানীগঞ্জ থানার কতমতলী উপজেলা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার বাবু বাউফল উপজেলার বগা ইউনিয়নের শাপলাখালী গ্রামের বাসিন্দা। ভুক্তভোগী বাউফলের একটি কলেজের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী।

জানা যায়, গত ১১ জুন ওই ছাত্রী কলেজ শেষে বাড়ি ফেরার পথিমধ্যে পিস্তল বাবু, সুমন ও সিএনজি চালিত অটো রিকশা চালক সোহেল তাকে একটি ঘরের ভেতর ধরে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে

এবং মোবাইল ফোনে ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে তাকে ছেড়ে দেয়। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী বাদী হয়ে তিনজনকে আসামী করে বাউফল থানায় একটি মামলা করে। পরে আসামীরা আত্মগোপনে চলে যায়।

এর পরিপ্রেক্ষিতে বাউফলে এক কলেজছাত্রীকে (১৮) গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি বাবু মৃধা ওরফে পিস্তল বাবুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। র‌্যাব-৮ ও র‌্যাব-১০ এর যৌথ টিম অভিযান চালিয়ে শনিবার ঢাকার কেরানীগঞ্জ থানার কদমতলী উপজেলার সুফিয়া হাসপাতালের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *