আন্তর্জাতিক

মাকড়সার বংশ বাড়ছে দ্রুত! ঘন জালে ঢাকল শহরের গাছপালা

ব্যাকড্রপে জনজীবনের ছবি থাকলেও, ছবিগুলোর সাবজেক্ট বেশ বিস্ময়কর। লেকের ধারের প্রায় সমস্ত গাছপালা ঢেকে গিয়েছে মাকড়সার জালে। হঠাৎ দেখলে মনে হতে পারে কেউ বুঝি পাতলা চাদর দিয়ে মুড়ে দিয়েছে সেই সব গাছ।

Spider web

শহর জুড়ে মাকড়সার জাল! ছবি: গিয়ানিস গিয়ানাকোপোলসের ফেসবুক পেজ

গ্রিসের একটি ছোট্ট শহর অ্যায়তোলিকো। শান্ত, নিরিবিলি শহরটির ঐতিহাসিক তেমন কিছু গুরুত্ব না থাকলেও, হঠাতই সংবাদের শিরোনামে উঠে এসেছে সম্প্রতি।

গ্রিসের আরও এক শহর অ্যাগ্রিনিওনের বাসিন্দা গিয়ানিস গিয়ানাকোপোলস, সম্প্রতি কিছু ছবি পোস্ট করেছেন তাঁর ফেসবুক পেজে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, নীল জলের একটি লেকের পাশে একটি শহর। সুন্দর বাড়ি-ঘরগুলোর সামনে দাঁড়িয়ে রয়েছে গাড়িও। যেমনটা হয় একটি বসবাসোপযোগী স্থানে।

কিন্তু স্বাভাবিক এই চিত্র নয়, গিয়ানিসের ছবি নজর কেড়েছে একেবারে অন্য কারণে। ব্যাকড্রপে জনজীবনের ছবি থাকলেও, ছবিগুলোর সাবজেক্ট বেশ বিস্ময়কর। লেকের ধারের প্রায় সমস্ত গাছপালা ঢেকে গিয়েছে মাকড়সার জালে। হঠাৎ দেখলে মনে হতে পারে কেউ বুঝি পাতলা চাদর দিয়ে মুড়ে দিয়েছে সেই সব গাছ।

প্রায় ৩০০ মিটার দৈর্ঘ্যের সেই জাল আদতে মাকড়সাদের প্রজননের ফলে। গ্রিসের নিউজ ওয়েবসাইটে এমনটাই জানিয়েছেন মলিকিউলার বায়োলজিস্ট মারিয়া চাৎজাকি। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ‘দ্য গার্ডিয়ান’-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই জাল তৈরি করেছে ‘টেট্রাগ্‌নাথা’ প্রজাতির মাকড়সা। মারিয়া চাৎজাকি জানিয়েছেন যে, এই মাকড়সাগুলো আকারে বেশ ছোট হয়, মাত্র ২ সেন্টিমিটার বা তার থেকেও ছোট।

আন্তর্জাতিক আরও একটি সংবাদমাধ্যম ‘সিএনএন’-এর প্রতিবেদনে এমন জালের ব্যাখ্যা দিয়েছেন গ্রিক বায়োলজিস্ট ও ‘মেসোলঙ্গি ন্যাশনাল লেগুন পার্ক’-এর প্রেসিডেন্ট ফরটিস পারজেন্টিস।

বর্তমানে অ্যায়তোলিকোর আবহাওয়া বেশ গরম ও আর্দ্রতাও বেশি। এর ফলে মশার মতো এক ধরনের পোকার জন্ম বেড়ে যায় বেশ কয়েক গুণ। ‘ন্যাট’ নামে এই পোকাগুলি মাকড়সাদের খুবই প্রিয় খাবার। বেশি পরিমাণ খাবার উৎপাদনের ফলে মাকড়সাদেরও বংশবৃদ্ধি হয় খুব দ্রুত। আবহাওয়া বদলের সঙ্গে সঙ্গেই কমতে শুরু করবে ন্যাট ও মাকড়সার সংখ্যাও।

অ্যায়তোলিকোর বাসিন্দারা এমন মাকড়সার জাল নিয়ে একেবারেই বিচলত নন। কারণ মানুষ বা পশুপাখির কোনও ক্ষতি করে না এই মাকড়সা বা তার প্রিয় খাবারটিও

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *