বাংলাদেশরাজনীতি

দল শক্তিশালী করতেই ট্রেন সফর: ওবায়দুল কাদের

ট্রেনযোগে উত্তরবঙ্গ সফর প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সরকারের উন্নয়ন কাজ তৃণমূলে পৌঁছে দিতে এবং দলকে শক্তিশালী করতেই উত্তরাঞ্চলে আওয়ামী লীগের ট্রেন সফর। ভবিষ্যতে নৌ ও সড়ক পথেও সফর করা হবে।

শনিবার সকালে নির্বাচনী ট্রেন যাত্রার শুরুতে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে সেতুমন্ত্রী এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘তৃণমূলের মানুষ যাতে বিএনপি জামায়াতের গুজবের রাজনীতির নিয়ে সচেতন হয়, সে বিষয়ে দলের এ সাংগঠনিক কার্যক্রম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এটা আমাদের নির্বাচনী যাত্রা। যা আগামীতেও অব্যাহত থাকবে। এ ট্রেন যাত্রার মধ্য দিয়ে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলোতে নির্বাচনী সফর করবে আওয়ামী লীগ। আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর লঞ্চযোগে নির্বাচনী সফর করব আমরা। এরপর সড়ক পথে আমাদের চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, কিশোরগঞ্জ যাওয়ার কথা রয়েছে।’

‘কিছুদিন আগে আমরা রাজশাহীতে নির্বাচনী সফর করে এসেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন বার্তা তৃণমূলে পৌঁছে দেওয়ার জন্যই আমাদের এ সফর। এর মাধ্যমে আমরা তৃণমূলের কিছু বার্তা দিতে চাই।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘সামনের নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে। প্রস্তুতি সেভাবেই নিতে হবে। অভ্যন্তরীণ কোনো সমস্যা থাকলে তা নিরসন করা হবে। আমাদের এ যাত্রা তৃণমূল নেতাকর্মীদের চাঙ্গা করবে।’

শনিবার সকালে আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দল উত্তরবঙ্গের উদ্দেশে রওয়ানা দিয়েছে।

একাদশ জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে গঠিত ১৫টি সাংগঠনিক দলের চলমান সফরের অংশ হিসেবে শনিবার সকাল ৮টায় কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে ‘নীলসাগর’ এক্সপ্রেসে চড়ে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিদল উত্তরবঙ্গের উদ্দেশ্যে রওনা হয়।

দুইদিনের সফরে টিমের নেতৃত্ব দিচ্ছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। সঙ্গে থাকবেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, বি এম মোজাম্মেল হক, আনোয়ার হোসেন, আহমদ হোসেন, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, উপ দফতর ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়াসহ অন্য নেতারা।

ঢাকা থেকে যাত্রা শুরু করে ট্রেনটি নীলফামারী থামবে। যাত্রা পথে ট্রেনটির ৮টি স্টপেজে সংক্ষিপ্ত পথসভায় বক্তব্য রাখবেন আওয়ামী লীগ নেতারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *