বিনোদন

শাকিবকে হটিয়ে দিলেন মাহি

ঈদে বেশি সিনেমায় অভিনয়ের আসনটা প্রায় সবসময় শাকিব খানের দখলেই। কিন্তু এবারের ঈদুল আজহায় হিসাবটা উল্টে গেল। শাকিব খানকে হটিয়ে দিলেন মাহি। এবার আর শাকিব খান নয়, ঈদে সবচেয়ে বেশি ছবিতে অভিনয় করার হাসিটা মাহিয়া মাহির ঠোঁটে।

ঈদে মুক্তি প্রতীক্ষিত চারটি সিনেমার মধ্যে দুটিতে নায়িকা হিসেবে দেখা যাবে মাহিকে। ছবি দুটি হচ্ছে ‘জান্নাত’ এবং ‘মনে রেখ’। দুটি ছবিই সেন্সর ছাড়পত্র পেয়ে গেছে। এখন শুধু দর্শকদের সামনে আসার অপেক্ষা।

এই আনন্দের সঙ্গে দর্শক-ভক্তদের মনে ব্যাথাও আছে কিছু। প্রিয় নায়িকা মাহির দুটি সিনেমা আসছে, তবুও কেমন যেন হাহাকার বিরাজ করছে চলচ্চিত্র বাজারে। চুপসে আছে দর্শক-ভক্তদের মুখ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও নেই তেমন উত্তেজনা।

এর একটা কারণ জানালেন মাহি, বললেন, ‘এটা আসলে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের প্রচারণার ওপর নির্ভর করে। আমার অভিনীত দুটি সিনেমা আসছে। ঈদের বাজারে দ্বিগুন গতিতে এগুলোর প্রচারণা প্রয়োজন।’

প্রচারণা যে হচ্ছে না তা নিয়ে মাহির অল্প মনকষ্ট থাকলেও করার নেই কিছু। তাই দুই সিনেমার নায়িকা হয়েই আনন্দ নেয়ার চেষ্টা করছেন। এখানেও কিছুটা দুঃশ্চিন্তা তার। শেষ পর্যন্ত দুটো সিনেমা মুক্তি পাবে তো? ‘আমি আশা করছি দুটি সিনেমাই মুক্তি পাবে। নিশ্চিত করে বলতে পারছি না কারণ, শেষ পর্যন্ত যে কি হয় বলা যায় না। তবে দুটি ছবি যদি মুক্তি পায় তাহলে নিশ্চয়ই আমার ভালো লাগবে। কারণ দুটি সিনেমা দুই রকমের। দর্শকরা আমাকে দুই ঢংয়ে দেখতে পারবেন। এটাও একটা আনন্দের বিষয়।’ বললেন মাহি।

‘জান্নাত’ ও ‘মনে রেখ’ দুটি সিনেমার ঢং আলাদা। তা ছবির ট্রেইলার দেখেই বোঝা যায়। দুটি ছবিতেই প্রাধান্য পেয়েছে ভালোবাসা-প্রেম, তবে তা ভিন্ন ভিন্ন আঙ্গিকে।

‘জান্নাত সিনেমা নিয়ে আমার আশাবাদ বেশি। কারণ ছবির গল্পটাই আলাদা। না না, তাই বলে খুব আলাদা বা অন্যরকম কিছু করে ফেলেছি এমন ভাববেন না। আমি এই প্রথম একটু ন্যাকামিহীন এবং গ্ল্যামার কমিয়ে কাজ করার চেষ্টা করেছি।’ মাহির এই কথা শুনে দর্শকরা তাকে ভুল বুঝবেন না। নন গ্ল্যামার মানে এই না যে তাকে সুন্দর লাগবে না। ভক্তের মাহি ভক্তের চাহিদা মতই থাকবেন। ব্যাপারটা মাহি-ই ভালো করে বুঝিয়ে বললেন। ‘আমার আগের অনেক সিনেমাতেই কিছুটা ন্যাকামি করেছি। এটা দর্শকরা দেখলেই বুঝবেন। এটা অনেকেই করে। কিন্তু জান্নাত সিনেমায় সেই বিষয়গুলো অভিনয়ে না রাখার চেষ্টা করেছি।’

মাহিকে সিনেমার বড় অংশ জুড়ে দেখা যাবে হিজাব পরে থাকতে। এই পোশাকে মাহিকে যেমন স্নিগ্ধ লেগেছে তেমনি ছবিটিও স্নিগ্ধতা ছড়াবে বলে আশা করছেন মাহি। তিনি বলছেন, ‘ছবিতে যেমন ভালোবাসা আছে, কেমন একটা পবিত্রতাও আছে, আবার এর উল্টো চিত্রও আছে। মজার বিষয় হলো, ছবিটি যে এতটা বৈচিত্রপূর্ণ হবে তা আমি আগে বুঝিনি। আমি তো পরিচালক (মোস্তাফিজুর রহমান মানিক), সহশিল্পী (সায়মন সাদিক) আর গল্পের কিছু প্লট শুনে অভিনয় করতে রাজি হয়ে গেছি। কিন্তু এর দৃশ্যায়ন যে এত সুন্দর হয়ে উঠবে বুঝিনি। দর্শকদের বলব শুধু মেসেজ বা শুধু বিনোদন নয়, সবকিছুর জন্যই জান্নাত ছবিটি দেখা উচিত দর্শকদের।’

অন্যদিকে কলকাতার বনির সঙ্গে জুটি বেঁধে মাহির প্রথম সিনেমা ‘মনে রেখ’। হার্টবিট প্রোডাকশনের প্রযোজনায় ছবিটি পরিচালনা করেছেন ওয়াজেদ আলী সুমন। নাচে-গানে-কমেডিতে ভরপুর এই সিনেমা।

তবে নাচ-গান আর কমেডি ছাড়াই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনায় ছিল সিনেমাটি। কিন্তু ‘মনে রেখ’-এর ট্রেইলার প্রকাশের পর এতটা আলোচনা হয়নি, যতটা ছিল শুরুতে।

কিন্তু মাহি বলছেন, ‘মনে রেখ সিনেমাটি খুবই আনন্দের এবং ভালোবাসার। এরকম রোমান্টিক অ্যাকশন ঘরানার সিনেমা আমি অল্পই করেছি।’ তাই মনে রেখ সিনেমাটিও ঈদে মাতিয়ে রাখতে পারে দর্শকদের।

তবে সিনেমার চেয়ে মাহি বেশি পুলকিত তার দুই ধরনের লুক নিয়ে। দুই ছবিতে তাকে দেখা যাবে দুই ঢংয়ে। ‘আমাকে দর্শকরা দুইভাবে দেখতে পাবে। অনেক সময় যে ঈদে একাধিক সিনেমা মুক্তি পেল কোনো অভিনয় শিল্পীর, কিন্তু সব ছবিতে তাকে একই রকম লাগছে। আমার ক্ষেত্রে এমন হচ্ছে না। দর্শকরা আমাকে দেখে ক্লান্ত হবেন না আশা করি। এটা আমাকে খুব প্রশান্তি দিচ্ছে।’

মাহি নিজেকে খুব লাকি (ভাগ্যবান) মনে করেন। তাই আশা করছেন তার সঙ্গে ভালো কিছুই হবে। সেইসঙ্গে তার অভিনীত সিনেমাগুলোও হবে ব্যবসাসফল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *