অপরাধআন্তর্জাতিক

আটজন মিলে ধর্ষণ করে মেরে ফেলল গর্ভবতী ছাগল

গর্ভবতী এক ছাগলকে ধর্ষণ করল আটজন। পাশবিক অত্যাচারে সাত বছর বয়সী গর্ভবতী ছাগলটি শেষ পর্যন্ত মারা গেছে। খবর : হিন্দুস্তান টাইমস।

এ নির্মম ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৫ জুলাই ভারতের হরিয়ানা রাজ্যের মেওয়াটের মারোদা নামক গ্রামে।

গ্রামবাসীর বক্তব্য, ছাগলটি আসলু খান নামক এক ব্যক্তির পোষ্য। রাতের অন্ধকারে ছাগলটিকে চুরি করে একটি পরিত্যক্ত জায়গায় নিয়ে অভিযুক্ত আটজন মিলে নির্মমভাবে ধর্ষণ করতে থাকে।

ইতিমধ্যে পোষ্যকে না পেয়ে খুঁজতে বের হয়ে আসলু ঘটনাস্থলে পৌঁছে তিনজনকে হাতেনাতে ধরে ফেলে। যন্ত্রণায় কাতরাতে থাকা ছাগলটিকে বাড়িতে নিয়ে আসার আগেই মারা যায়।

ঘটনার পর গ্রামবাসী অভিযুক্ত আটজনকে আটক করে মারধর করলে তারা তাদের অপরাধের কথা স্বীকার করে।

স্থানীয় নাগিনা পুলিশ ফাঁড়ির এসআই রাজবীর সিং বলেন, মৃত ছাগলটির মালিক এসে আটজনের বিরুদ্ধে অবলা পশুর ওপর নারকীয় নির্যাতনের অভিযোগ করেছেন।

ছাগলটির ময়নাতদন্তের রিপোর্টে স্থানীয় পশুচিকিৎসক ডক্টর রামভীর ভারদোওয়াজের ভাষ্য, পাশবিক নির্যাতনের কারণেই ছাগলটি মারা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *