অপরাধবাংলাদেশ

ঘুমের ওষুধ খাইয়ে স্ত্রীর নগ্ন ছবি তুলতেন নাজমুল, দাবি পুলিশের

সংখ্যালঘু এক নারীকে ধর্মান্তরিত করে বিয়ের পর মাথার চুল কেটে দিয়ে ফেসবুকে নগ্ন ছবি ও ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগে সোমবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে গ্রেফতার করা হয় নাজমুলকে। ওই রাতেই নাজমুল ও তার স্ত্রীর মুঠোফোন জব্দ করে পুলিশ।

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় গ্রেফতারকৃত যুবক নাজমুল হোসেন ঘুমের ওষুধ খাইয়ে স্ত্রীর নগ্ন ছবি তুলতেন বলে দাবি করেছে পুলিশ।

১ অক্টোবর, সোমবার ওই যুবককে গ্রেফতারের পরের দিন মঙ্গলবার দুপুরে সদর থানা পুলিশের এক সংবাদ সম্মেলনে এমন দাবি করা হয়।

সংখ্যালঘু এক নারীকে ধর্মান্তরিত করে বিয়ের পর মাথার চুল কেটে দিয়ে ফেসবুকে নগ্ন ছবি ও ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগে সোমবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে গ্রেফতার করা হয় নাজমুলকে। ওই রাতেই নাজমুল ও তার স্ত্রীর মুঠোফোন জব্দ করে পুলিশ।

সংবাদ সম্মেলনে কুষ্টিয়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দিন জানান, নাজমুল অত্যন্ত ধূর্ত ও প্রতারণায় অভ্যস্ত। পুলিশের কাছে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জানিয়েছেন, নিজেকে হিন্দু ও অবিবাহিত হিসেবে পরিচয় দিয়ে মেয়েটিকে প্রেমের ফাঁদে ফেলেন। পরে ধর্মান্তরিত করে তাকে বিয়ে করতে বাধ্য করেন তিনি। ঘরে স্ত্রী-সন্তান থাকায় অন্য জায়গায় বাসা ভাড়া নিয়ে ওই নারীকে নিয়ে বসবাস করতে থাকেন নাজমুল। বিয়ের পর পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী কৌশলে গোপন ক্যামেরায় দ্বিতীয় স্ত্রীর নগ্ন ছবি ও ভিডিও ধারণ করেন তিনি। এমনকি দুজনের শারীরিক সম্পর্কের ভিডিও ধারণ করেও নিজের কাছে রেখে দেন এই যুবক।

পুলিশের দাবি, নগ্ন ছবি ও ভিডিও ধারণের আগে স্ত্রীকে ঘুমের ওষুধ খাওয়াতেন নাজমুল। এসব ছবি ও ভিডিওর ভয় দেখিয়ে তিনি অসৎ উদ্দেশ্য হাসিল করতেন। বাগে আনতে না পেরে শেষ পর্যন্ত চরিত্রহীন হিসেবে প্রমাণ করার জন্য স্ত্রীকে পিটিয়ে মাথার চুল কেটে দেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়েও আয়ত্তে আনতে না পেরে শেষ পর্যন্ত গোপনে ধারণ করে রাখা নগ্ন ছবি ও ভিডিও ফেসবুকে ছেড়ে দেন নাজমুল। নিজেকে ধরাছোয়ার বাইরে রাখতে তিনি স্ত্রীর মুঠোফোন ছিনিয়ে নিয়ে তার (স্ত্রী) ফেসবুক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করে ফেলেন। ওই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে এসব নগ্ন ছবি ও ভিডিও প্রচার করেন নাজমুল।

ওসি আরও জানান, নাজমুলকে সোমবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। দ্রুত সময়ের মধ্যে তার বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *