অপরাধবাংলাদেশ

ধানক্ষেতে নবজাতককে ফেলে গেলেন তরুণ-তরুণী!

রাতের আঁধারে দুই তরুণ-তরুণী মিলে রাস্তার পাশে ধানক্ষেতে বাজারের ব্যাগে থেকে ফেলে দেয় এক নবজাতককে। বাড়ি ফেরার পথে এক কলেজছাত্র ধানক্ষেতে নবজাতকের কান্না শুনে তাকে উদ্ধার করে। পরে কন্যাশিশুটিকে থানায় নিলে উৎসুক জনতার ভিড় জমে। অনেকেই উদ্ধার হওয়া শিশুটির দায়িত্ব নিতে আগ্রহী হন।

এমন ঘটনাটি ঘটে ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলায়।স্থানীয়রা জানায়, রবিবার রাতে সদ্য জন্ম নেয়া এক কন্যাশিশুকে নান্দাইলের ঘোষপালা নামক এলাকায় রাস্তার পাশে ধানক্ষেতে ফেলে যায় অজ্ঞাত দুই তরুণ-তরুণী।ওই এলাকার আনিছুর রহমান হৃদয় (২০) নামে এক কলেজছাত্র বাড়ি ফেরার সময় দূর থেকে দেখতে পান মহাসড়কের পাশ থেকে অজ্ঞাত দুই তরুণ-তরুণী সড়কের ওপরে এসে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় চলে যাচ্ছে। পরক্ষণেই এক শিশুর কান্না শুনতে পেয়ে তার বড় ভাই মিজানকে (২৫) ডেকে এনে মোবাইলের আলোতে শিশুটিকে খালি গায়ে দেখতে পান। পরে নিজের গায়ের শার্ট মুড়িয়ে বাচ্চাটি কোলে নিয়ে থানায় নিয়ে যান দুই ভাই।নান্দাইল মডেল থানার ওসি মো. কামরুল ইসলাম মিয়া বাচ্চাটির চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠান। খবরটি চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে শিশুটিকে দেখতে ও দত্তক নিতে হাসপাতালে ভিড় জমায় শত শত উৎসুক নারী-পুরুষ।

তবে নবজাতক বাচ্চাটির বাবা-মায়ের কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।সোমবার নান্দাইল মডেল থানার ওসি মো. কামরুল ইসলাম মিঞা জানান, পুলিশের তত্ত্বাবধানে শিশুটির চিকিৎসা চলছে। দত্তক নিতে ইচ্ছুকদের আদালতের মাধ্যমে অনুমতি নিয়ে আসার পরামর্শ দিয়েছেন।কতটা নির্মম হলে নিজ সন্তানকে ফেলে দেয় মা-বাবা? তার কোনো উত্তর না মিললেও প্রশ্ন থেকে যায় বিবেকের কাছে। ঠিক তেমনি ঘটেছে ময়মনসিংহের নান্দাইলে মহাসড়কের পাশে ধানক্ষেতে পাওয়া সেই নবজাতক শিশুর জীবনে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *