রাজনীতি

‘বৃহত্তর ঐক্যের আন্দোলনে বিএনপি সামনের কাতারে থাকবে’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ২০ দলের সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, বৃহত্তর ঐক্যের আন্দোলনে আমরা সামনের কাতারে থাকব। কারণ বিএনপির যে দাবি, সেগুলো এখন সব রাজনৈতিক দলের একই দাবি।

সোমবার (১ অক্টোবর) দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে সম্মিলিত ছাত্র ফোরাম আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়া ২০১৬ সালে বৃহত্তর ঐক্যের ডাক দিয়েছেন। তিনি যে পয়েন্টগুলো দিয়েছিলেন এখন দেখছি আমাদের বাম রাজনৈতিক দলগুলো, যুক্তফ্রন্ট, ড. কামাল হোসেনের ঐক্য প্রক্রিয়া সেই একই দাবি করেছেন। এই সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে, নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে, সংসদ বাতিল করতে হবে, ইভিএম করা যাবে না, নির্বাচনের আগে ও পরে সেনা মোতায়েন করতে হবে এই দাবি গুলো খালেদা জিয়ার বৃহত্তর ঔজ্যের ডাকে বলেছিলেন।

আর যাদের সঙ্গে আমাদের দাবি এক তাদের সঙ্গে মিলে লড়াই আমরা অবশ্যই করতে পারব উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমরা বিএনপির পক্ষ থেকে বলেছি আমরা শুধু বৃহত্তর ঐক্যতেই রাজি নই, বৃহত্তর ঐক্যের আন্দোলনে আমরা সামনের কাতারে থাকবো।’

বিএনপির জনসভা দেখে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের মন্তব্যের জেরে তিনি বলেন, ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্য -তিনি হতাশ হয়েছেন। তারা চিন্তাও করতে পারেনি এত অল্প সময়ের মিটিংয়ে এত মানুষ হবে, হতাশ হওয়ারই কথা। সাতদিন ধরে তারা প্রস্তুতি নেন। বিশাল সাইজের প্যান্ডেল করেন। উপরে ত্রিপল, নিচে কার্পেট, সামনে সোফা, পিছনে চেয়ার। স্কুল কলেজের শিক্ষার্থী, মসজিদের ইমাম, সরকারি কর্মচারীদের নিয়ে আসেন। এতকিছু করার পর যেই মানুষ হয়, আর আমাদের মাত্র ২৪ ঘণ্টার নোটিশে যে পরিমান মানুষ হয় তা দেখে তাদের হতাশ হওয়া স্বাভাবিক।’

প্রতিবাদ সভায় এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, সম্মিলিত ছাত্র ফোরামের আহ্বায়ক নাহিদুল ইসলাম নাহিদ, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মোহাম্মদ রহমতুল্লাহ, শাহবাগ থানা কৃষক দলের সভাপতি এম জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *